নতুন শিক্ষকরা যোগদান থেকে যেভাবে বেতন পাবেন

ঢাকা: বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষক পদে সুপারিশ পেয়ে বিভিন্ন স্কুল-কলেজে যোগদান করা শিক্ষকরা যোগদান থেকেই বেতন পাবেন। স্কুল-কলেজের এমপিও নীতিমালার এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন শুরু করছে শিক্ষা প্রশাসন।

তবে, এ ক্ষেত্রে নতুন শিক্ষকরা যোগদানের পর এমপিওভুক্ত হওয়ার মাসের আগের মাসের বেতন বকেয়া বাবদ পাবেন। শিক্ষকরা যোগদান থেকে নিরবচ্ছিন্নভাবে কর্মরত থাকলে প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কমিটির সুপারিশ ও সভার রেজুলেশনসহ আঞ্চলিক কার্যালয়ে অনলাইনে বা অফলাইনে বকেয়া বেতন পাওয়ার আবেদন করতে পারবেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর ও অধিদপ্তরের আঞ্চলিক কার্যালয়গুলোর কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এনটিআরসিএর সুপারিশ পেয়ে যোগদান করেছেন নতুন শিক্ষকরা। গত জানুয়ারি মাসে চূড়ান্ত সুপারিশ পেয়ে বিভিন্ন স্কুল-কলেজে যোগদান করলেও প্রক্রিয়াগত শিক্ষকদের এমপিওভুক্ত হতে দুই মাস থেকে পাঁচ মাস সময় লেগে যায়। প্রচলিত নিয়মে মার্চ ও মে মাসের এমপিও কমিটির সভায় স্কুল-কলেজের নতুন শিক্ষকরা এমপিওভুক্ত হন। মে মাসে স্কুল কলেজের প্রায় আট হাজার ও মার্চ মাসের এমপিও কমিটির সভায় চার হাজার ৪২২ জন শিক্ষক এমপিওভুক্ত হয়েছেন।

জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে যোগদান করলেও শিক্ষকদের কেউ কেউ ফেব্রুয়ারি, আবার অনেকে ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিল তিন মাসের বেতন পাননি। যদিও এমপিও নীতিমালায় স্কুল কলেজে এনটিআরসিএর মাধ্যমে সুপারিশ পাওয়া শিক্ষকদের যোগদান থেকে বেতন দেয়ার নির্দেশনা ছিলো। এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন শুরু করছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

শিক্ষকরা কোন নিয়মে যোগদান থেকে বেতন পাবেন জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ফৌজিয়া জাফরিন বলেন, এমপিও নীতিমালায় বিষয়টি উল্লেখ থাকলে তা বাস্তবায়ন করবে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মাধ্যমিক শাখার পরিচালক মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন বলেন, এমপিও নীতিমালায় উল্লেখ আছে, নতুন শিক্ষকরা যোগদান থেকে বেতন পাবেন। এ বিষয়টি বাস্তবায়নে একটি নির্দেশনা কলেজ-২ শাখার উপপরিচালকের দপ্তর থেকে মাঠ পর্যায়ে গেছে।

আঞ্চলিক কার্যালয়ে নির্দেশনা পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উপপরিচালক (কলেজ-২) মো. এনামুল হক হাওলাদার বলেন, স্কুল কলেজের নতুন শিক্ষকদের যোগদান থেকে বেতন দেয়ার বিষয়ে এমপিও নীতিমালার নির্দেশনা বাস্তবায়ন শুরু হচ্ছে। আঞ্চলিক পরিচালক ও উপপরিচালকদের এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

যেভাবে আবেদন করতে হবে : উপপরিচালক (কলেজ-২) মো. এনামুল হক হাওলাদার এ বিষয়ে বলেন, প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির মাধ্যমে নতুন শিক্ষকরা যোগদান থেকে নিরবচ্ছিভাবে কর্মরত আছেন এমন সুপারিশ ও রেজুলেশনসহ আঞ্চলিক কার্যালয়ে বকেয়া বেতনের আবেদন করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে তাদের রেজুলেশনে এমপিও নীতিমালার ওই অংশটি উল্লেখ করতে হবে। এভাবে তারা আঞ্চলিক কার্যালয়ে বকেয়া আবেদন করতে পারবেন। সব ঠিক থাকলে শিক্ষকদের বকেয়া বেতনের আবেদন অনুমোদন করে নতুন শিক্ষকদের বকেয়া বেতনের আবেদন করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, নতুন কোনো শিক্ষক ফেব্রুয়ারিতে যোগদান করে মে মাসে এমপিওভুক্ত হলো। তার কমিটির সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে তাকে ফেব্রুয়ারি, মার্চ, এপ্রিল মাসের বেতন বকেয়া দেয়ার সুপারিশ করতে হবে। এ ক্ষেত্রে এমপিও নীতিমালার ধারাটি উল্লেখ করে ওই শিক্ষক যে মাস থেকে কর্মরত আছেন তা উল্লেখ করে শিক্ষকদের আবেদন করতে হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজশাহী অঞ্চলের উপপরিচালক ড. শরমিন ফেরদৌস চৌধুরী বলেন, শিক্ষকদের বকেয়ার আবেদন অনলাইন ও অফলাইনে নেয়া হয়। বকেয়া বেতনের বিষয় তাদের কমিটির সভা করে তাদের বকেয়া বেতনের সুপারিশ নিতে হবে। বকেয়া বেতনের সুপারিশসহ তাদের অফলাইন বা অনলাইনে আঞ্চলিক কার্যালয়ে আবেদন করতে হবে। সে আবেদন আমরা অনুমোদন দেবো।

২০২১ খ্রিষ্টাব্দের ২৮ মার্চ বেসরকারি স্কুল-কলেজের নতুন এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। তাতে যোগদান থেকে নতুন শিক্ষকদের বেতন দেয়ার ঘোষণা ছিলো। নীতিমালার ১৭.৭ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এনটিআরসিএর সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে এমপিও পদে যোগদানকৃত শিক্ষক-প্রদর্শকের একাডেমিক সার্টিফিকেট, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, নিবন্ধন ও সুপারিশ যথাযথ থাকলে এবং অতীতে অপরাধমূলক বা বিরূপ কোন রেকর্ড না থাকলে ও প্রতিষ্ঠানে কর্মরত থাকলে তাদের এমপিওভুক্তি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগদানপত্র গৃহীতের তারিখ থেকে কার্যকর হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রমতে, সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্ত পদে ৩০ হাজার ৯০৪ জন প্রার্থীকে সুপারিশ করেছিলো এনটিআরসিএ। কিন্তু, সুপারিশপ্রাপ্ত শিক্ষকদের যোগদান থেকে এমপিওভুক্তির বিষয়ে নীতিমালায় সুস্পষ্ট ঘোষণা থাকলেও নতুন শিক্ষকদের কেউই তা এতোদিন পাননি। এমন পরিস্থিতিতে সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন যোগদান করা শিক্ষকরা এমপিও নীতিমালা অনুসারে যোগদান থেকে এমপিওভুক্তির দাবি জানাচ্ছিলেন।

এদিকে স্কুল-কলেজের এমপিও নীতিমালায় যোগদান থেকে বেতনের ঘোষণা থাকলেও মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের এমপিও নীতিমালায় এ ঘোষণা আসেনি। তাই মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের নতুন শিক্ষকরা দুই নীতিমালার সমন্বয় করে তাদেরও যোগদান থেকে এমপিও দেয়ার দাবি জানিয়ে আসছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.