কেঁদে যদি ভুল করে থাকি, ক্ষমা করবেন: রিয়াজ

এফডিসিতে শিল্পী সমিতির ভোটাধিকার হারানো ভোটার সংখ্যা ১৮৪ জন। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের আগে সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ভোটাধিকার হারানো কয়েকজনের সঙ্গে দেখা হয় চিত্রনায়ক রিয়াজের।

এসময় ভোটাধিকার হারানো এক বৃদ্ধ রিয়াজকে জড়িয়ে ধরে কান্না শুরু করেন। তখন সেই বৃদ্ধ শিল্পীকে জড়িয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন রিয়াজও। সেখানে ভোটাধিকার হারানো প্রায় ৫০ জন শিল্পী রিয়াজের সঙ্গে চিৎকার করে কান্না শুরু করেন। এদিকে বিষয়টি ‘মায়া কান্না’ বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

এ বিষয়ে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের রিয়াজ বলেন, ‘কোনো কিছু অন্যভাবে নেওয়ার আগে, কিছু বলার আগে ভাবা উচিৎ, আমরাও মানুষ। আমাদেরও হাসি-কান্না আছে। আমরা চেষ্টা করি আবেগকে দমিয়ে রাখতে। কিন্তু অনেক সময় দীর্ঘদিনের দমিয়ে রাখা আবেগের বহিঃপ্রকাশ হয়ে যেতেই পারে। একজন বৃদ্ধ শিল্পীকে জড়িয়ে ধরে কেঁদে আমি যদি ভুল করে থাকি, আপনারা আমাকে ক্ষমা করবেন।’

এফডিসিতে কান্নার বিষয়ে রিয়াজ বলেন, ‘একজন সত্তরোর্ধ বৃদ্ধ, ষাটোর্ধ নারী, যাদের সদস্যপদ বাতিল হয়েছে, তারা আমাদের সঙ্গে সঙ্গে নির্বাচনী গানের তালে নাচছিলেন। এই মানুষগুলোর খুব বেশি চাওয়া-পাওয়া নেই। তাদের আনন্দ দেখে এবং তাদের সদস্যপদ বাতিলের বিষয়টি জেনে আমি আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলাম। সেই আবেগকে নিয়ে যারা ট্রল করেছেন, তাদের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা, ভালোবাসা। আপনারা এভাবেই ট্রল করতে থাকেন। তাতে আমাদের কিছু যাবে-আসবে না।

কারণ আমি জানি আমি কী, আমার সৃষ্টিকর্তা জানেন আমি কী, শিল্পীরা জানেন আমরা কী।’ রিয়াজ বলেন, ‘আমরা শিল্পী। তবে একজন মানুষের মধ্যে সহজাত যে আবেগ থাকে, সেটা আমাদের মাঝেও আছে। আমার মা যখন মারা যান এবং আমি যখন কাঁদছিলাম তখন অনেকের মনে হয়েছিল, এটা হয়ত অভিনয়। এটা আমি ফেস করেছি বিগত দিনে। এটা শিল্পীদের একটি চিরায়ত ব্যাপার।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.